সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
নড়িয়ায় করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের মৃত্যুতে ৩৩ পরিবার লকডাউনে শরীয়তপুর হাসপাতালে করোনা সন্দেহে মৃতের লাশ নিয়ে পালালো স্বজনরা জাজিরার গজনাইপুর ও চরধুপুরে ৩০টি বাড়িঘর কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা ইকবাল হোসেন অপুর পক্ষে নেতারা খাদ্য নিয়ে কর্মহীনদের বাড়ি বাড়ি নড়িয়ায় শ্বাসকষ্টে রোগীর মৃত্যু, করোনা সন্দেহে পাঁচ পরিবার লকডাউন শরীয়তপুরে শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হওয়া এক রোগীর মৃত্যু শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শরীয়তপুরে এই প্রথম করোনা সন্দেহে এক তরুণী আইসোলেশনে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বাড়ি বাড়ি এনামুল হক শামীম শরীয়তপুরে বিভিন্ন স্থানে পারভীন হক সিকদারের পক্ষে জীবানুনাশক স্প্রে
বসত ঘর ভেঙ্গে জমি দখলের অভিযোগ

বসত ঘর ভেঙ্গে জমি দখলের অভিযোগ

মেহেদী হাসান ॥ মাদারীপুর জেলার খোয়াজপুর মঠের বাজার এলাকার সিদ্দিকুর রহমান নামে এক প্রভাবশালী ২০ বছরের পুরাতন বসত ঘর ভেঙ্গে দিয়ে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। ২৪ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাত ১১টার দিকে সিদ্দিকুর রহমান তার লোকজন নিয়ে লুৎফর রহমান সরদারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বসত ঘর ও রান্নার ঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে এবং ফলজ ও কাঠের গাছ কেটে ফেলে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। এই ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। ঘটনা পরবর্তী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে আঙ্গুলকাটা পুলিশ ফাড়ির পুলিশ । ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জানায়, খোয়াজপুর মৌজার ১৮১১ নং খতিয়ানের ৪৩২৪ নং দাগে ৩০শতাংশ জমিতে লুৎফর রহমান সরদারের নামে এসএ ও বিআরএস জরিপে রেকর্ড হয়। রেকর্ডীয় জমিতে বসত ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছি। দীর্ঘ ২০ বছর পর প্রতিবেশী মরহুম আবতাজদ্দিন মোল্যার ছেলে সিদ্দিকুর রহমান মোল্যা ও কুদ্দুস মোল্যা প্রভাব খাটিয়ে বাড়ির ৪শতাংশ জমি দখল করে সীমানা খুটি স্থাপন করেছে। প্রতিবাদ করায় সোমবার রাতে সিদ্দিকুর রহমান ও কুদ্দুস মোল্যা লুৎফর সরদারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে রান্না ঘর ও বসত ঘর ভাংচুর করে এবং সৃজিত গাছপালা গেটে জমি দখলের চেষ্টা করে। এসময় ৯৯৯ নম্বরে জরুরি কল করে পুলিশী সহায়তা প্রত্যাশা করেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। তাৎক্ষণিক পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে লিখিত অভিযোগ করতে বলেন। এই বিষয়ে মাদারীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন লুৎফর সরদারের স্ত্রী এলিজা বেগম। লুৎফর সরদার জানায়, পৈত্রিক সম্পত্তিতে ২০ বছর ধরে বাড়ি করে বসবাস করছেন সে। বাড়ি করার সময় সিদ্দিক মোল্যার পিতা আবতাজদ্দিন মোল্যা বাঁধা প্রদান করেন। তৎকালিন সময় পুলিশের উপস্থিতিতে আমিন দিয়ে জমি পরিমাপ করে বসত ঘর তুলি। ২০ বছর পর আবতাজদ্দিন মোল্যার ছেলে সিদ্দিক মোল্যা ও কুদ্দুস মোল্যা আমার বসত ঘরের অর্ধেক পরিমান তাদের দখলে নিয়ে সীমানা খুটি পোতে। তারপর থেকে আমাকে বসত ঘর সরিয়ে নিতে বলে। আমি ঘর সরিয়ে না নেয়ায় সোমবার রাতে সিদ্দিক মোল্যা ও কুদ্দুস মোল্যা ২০ থেকে ২৫ জন লোক নিয়ে এসে আমার রান্না ঘর ভেঙ্গে দেয়, বসত ঘর কোপায় এবং লুট করে। আমার বসত ঘর থেকে নগদ ১ লাখ টাকা ও সারে ৪ ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়। বাধা দেয়ার আমার স্ত্রী এলিজা ও মেয়ে রুনিয়াকে মারধর করে এবং খুব খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করে। বিষয়টি ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশকে জানাই। পুলিশ এসে বিষয়টি দেখে এবং লিখিত অভিযোগ করতে বলে। থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান মোল্যা বলেন, আমিন দিয়ে পরিমাপ করে সীমানা নির্ধারণ করেছি। তবে আমরা কারোর বাড়ি ঘর ভাংচুর করিনাই। বিষয়টি আমাদের ইউপি চেয়ারম্যান জানেন। খোয়াজপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মুন্সী বলেন, এই বিষয়ে আমার কাছেও অভিযোগ এসেছে। উভয় পক্ষকে উপস্থিত করে বিষয়টি সমাধান করে দিব। আঙ্গুলকাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ অফিসার মিরাজুল ইসলাম বলেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ ঘটনাস্থলে যাই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।  

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।