শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
পিএসসি’র পাশের হারে র্শীষে ভেদরগঞ্জ, সর্বনিন্মে নড়িয়া উপজেলা নবাগত পুলিশ সুপারের সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময় আংগারিয়ায় খাল খননে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পারভীন হক সিকদার এমপি’র পক্ষ থেকে দুঃস্থদের মধ্যে নগদ টাকা ও শীতবস্ত্র বিতরণ দুই লঞ্চের মুখোমুখি সংঘর্ষে ভেদরগঞ্জের রামভদ্রপুরের এক যুবক নিহত, আহত- ১২ ইতালীতে বহুতল ভবন থেকে পড়ে ভেদরগঞ্জের ৩ বছরের শিশু নিহত জাজিরায় মামলা তুলে না নেয়ায় ধর্ষিতার পিতাকে বোমা নিক্ষেপ, হাসপাতালে ভর্তি জাজিরায় ১৯ দিনেও ধর্ষক সাগর গ্রেপ্তার হয়নি ডুবন্ত যাত্রীদের উদ্ধারে পানিতে নেমে প্রশংসিত ডামুড্যা থানার ওসি ডামুড্যায় দুই মাদক ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড
আংগারিয়ায় খাল খননে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

আংগারিয়ায় খাল খননে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ


টাইমস রিপোর্ট ॥ শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া বাজার সংলগ্ন কীর্তিনাশা নদী থেকে একই উপজেলার বুড়িরহাট পযর্ন্ত খাল খননের কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ওঠেছে। জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে এই খাল খনন বাস্তবায়ন হচ্ছে। খাল খননের সময় প্রভাবশালীরা খাল দখল করে যে সকল পাকা ভবন নির্মাণ করেছে তা না ভেঙ্গে আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে খালের গতিপথ পরিবর্তন করাসহ নানা বিষয়ে স্বেচ্ছাচারিতা করার অভিযোগ রয়েছে প্রকল্প ঠিকাদার ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কতিপয় কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে। অভিযোগ রয়েছে, এসকল অনিয়মের সহায়তা করছেন আংগারিয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির ২/১ জন নেতা ও কতিপয় ব্যবসায়ী। এ বিষয়ে কেউ মুখ খুললে ব্যবসায়ী নেতাদের হুমকিসহ নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন তারা।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, খাল খনন এলাকার নীলকান্দি মৌজার সোনাই দেওয়ান প্রায় ৬০ বছর ধরে যে জমিতে বাড়ি-ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন সেই মালিকানা জমিতে খাল খনন করা হচ্ছে। এর উত্তর পাশে প্রভাবশালীরা খালের জমি দখল করে পাকা ভবন নির্মাণ করলেও রহস্যজনক কারণে তা উচ্ছেদ করা হচ্ছে না। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সহ-সভাপতি সিরাজ সরদারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খালের জমি দখল করে গড়ে ওঠেছে। সেই জমি রক্ষা করতে খালের গতিপথ পরিবর্তন করা হচ্ছে। এছাড়াও খাল দখল করে নির্মিত লক্ষœী নারায়ন সাহা, গোপাল সাহাসহ অনেকের বহুতল ভবন রক্ষা করতে খালের গতিপথ পরিবর্তন করে নীরিহ মানুষের বসত বাড়ি ও রেকর্ডীয় জমিতে গড়ে ওঠা স্থাপনা ভেঙ্গে দিয়ে খাল খনন করা হচ্ছে। রেকর্ডীয় জমি ও বসত বাড়ি হারিয়ে অনেক পরিবার জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডে ধর্না দিচ্ছেন।
ভুক্তভোগী সোনাই দেওয়ান বলেন, খাল খননের জন্য আমার রেকর্ডীয় জমি থেকে ৬৫ ফুট জমি ছেড়েছি। তার পরেও আমার বসত ঘর, গোয়াল ঘর ও গভীর নলকুপ খালের মাটি দিয়ে ঢেকে ফেলেছে। অথচ খালের জমি বাজারের ব্যবসায়ীদের দখলে রয়েছে। ঠিকাদার ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশ করে এই অপকর্ম করেছে। বাজারের ব্যবসায়ী মহাদেব নাগ বলেন, আমাদের দু’টি ভবনের ৪ ফুট করে খালের জায়গায় ছিল। সার্ভেয়ার আমার কাছে সমঝোতার প্রস্তাব পাঠায়। সার্ভেয়ারের সাথে আপোস না করে আমি ভবনের ৪ ফুট ভেঙ্গে খালের জায়গা খালি করে দিয়েছি। অথচ আমাদের দুই ভবনের মাঝখানে গোপাল সাহার ভবন খালের জমি ৯ ফুট দখল করে আছে তা ভাঙ্গা হচ্ছে না। কোন অদৃশ্য শক্তি এখানে কাজ করছে তা আমার জানা নাই।
বাজারের ব্যবসায়ী খাল খনন প্রকল্প সংলগ্নের বাসিন্দা মসজিদের ইমাম শফিউল্লাহসহ অনেক অসহায় পরিবার আংগারিয়া ভূমি অফিসের কর্মকর্তা, উপজেলা ও জেলা প্রশাসনসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেও কোন সমাধান পায়নি বলে জানিয়েছেন তারা।
এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী মো. সেলিম বলেন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে খাল পরিমাপ পরবর্তী খনন কাজ শুরু হয়েছে। খালের জমি দখল করে যে সকল স্থাপনা করা হয়েছে তার তালিকাও জেলা প্রশাসনের কার্যালয় থেকে করা হয়েছে। সে অনুযায়ী খাল খনন করার কথা। আমাদের কাছেও অভিযোগ এসেছে ঠিকাদার নাকি অর্থিক লাভবান হয়ে খালের গতিপথ পরিবর্তন করছে। কিন্তু সরেজমিন গিয়ে এই অভিযোগের কোন ভিত্তি পাওয়া যায় নাই।
আংগারিয়া বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হাওলাদার বলেন, কার দোকান ঘর খালের জমিতে পড়েছে তার তালিকা হয়েছে। সেই অনুযায়ি খাল খনন হচ্ছে। এর মধ্যে যদি কোন অনিয়ম হয় তা বাজার ও বাজার ব্যবসায়ীদের স্বার্থেই হচ্ছে। এখানে এক ব্যবসায়ী অন্য ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করবে। আসলে এই অভিযোগের কোন ভিত্তি নাই।
ঠিকাদার আবু মিয়া বলেন, আমি বিল্ডিং ভাংগার পক্ষে না। যে সকল বিল্ডিং খালের ভিতরে আছে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডিসি অফিসে সেই সকল বিল্ডিং এর তালিকা দিয়েছে। খালের ভিতরে থাকা বিল্ডিং ভাঙ্গার দায়িত্ব জেলা প্রশাসনের। খাল খননেন বিষয়ে কোন প্রকার অনিয়ম হচ্ছে না। আমরা কারোর কাছ থেকে কোন সুবিধা নেই নাই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।