শনিবার, ২০ Jul ২০১৯, ০৫:৩৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
শরীয়তপুরে নিখোঁজের ৩ দিন পর মাছ শিকারীর গলিত লাশ উদ্ধার শরীয়তপুরে ৮দিন জেলখেটে ধর্ষক জামিনে মুক্ত, আতঙ্কে ভিকটিমের পরিবার, সুশীল সমাজে ক্ষোভ শরীয়তপুরে কলেজছাত্রী গণধর্ষণের অভিযোগে ৪ পরিবহন শ্রমিকের বিরুদ্ধে মামলা, আটক-১ কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার চেষ্টা, জাজিরা পৌর মেয়রপুত্র জেলহাজতে পাটুনীগাঁওয়ে কাঠমিস্ত্রীকে হাতুড়িপেটা শরীয়তপুরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা কালকিনিতে মাদক মামলার পলাতক আসামী র‌্যাবের হাতে আটক শরীয়তপুরের কোয়ারপুরে দু’গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ৮ ডামুড্যায় অগ্নিকান্ডে মুদি দোকানীর মৃত্যু শরীয়তপুরে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স
শরীয়তপুরে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স

শরীয়তপুরে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স


স্টাফ রিপোর্টার ॥
শনিবার সকাল ১০ টায় শরীয়তপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালত ভবনে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স-২০১৯ খ্রিঃ সম্পন্ন হয়েছে। কনফারেন্সে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা ও দায়রা জজ প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীনের সভাপতিত্বে কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আ. সালাম খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল) কামরুল হাসান, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু সাঈদ, পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট মির্জা হজরত আলী, সিভিল সার্জন প্রতিনিধি ডা. আব্দুস সোবাহানসহ সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ, কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক, সিআইডি পরিদর্শক, গোয়েন্দা বিভাগের পরিদর্শক ও বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ।
কনফারেন্সে বক্তরা বলেন, কোথাও যদি কেউ ন্যায় বিচারে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তাহলে পুরো বাংলাদেশকে প্যারালাইজড করা হয়। স্বাধীন বিচার ব্যবস্থায় মানুষ যেন ন্যায় বিচার পায় তাই আমাদের একমাত্র চাওয়া। পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসীর সমন্বয়ের মাধ্যমে শরীয়তপুরবাসী যেন ন্যায় বিচার পায় সেই বিষয়টি আমরা নিশ্চিত করব। আমরা সবাই জানি মানুষের জন্যই আইন। মানুষের প্রয়োজনে মানুষই আইন সৃষ্টি করেছে। আমাদের সমন্বয়ের মাধ্যমেই যেন আইনের ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়। কনফারেন্সে সমন জারী, গ্রেপ্তারী, হুলিয়া ও ক্রোকি পরোয়ানা তামিল, ইনকোয়ারী বা তদন্তের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণ, সময়মত মেডিক্যাল সনদ, ময়না তদন্ত প্রতিবেদন, ফরেনসিক ও ভিসেরা প্রতিবেদন প্রাপ্তি, মামলা দ্রুত নিস্পত্তির জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ, মামলার সাক্ষি উপস্থাপন করা, রিমান্ড ও ফৌজদারী কার্যবিধির ৫৪ ধারার ক্ষেত্রে আপীল বিভাগের নির্দেশ পালন করা এবং উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্তসমূহ নিয়ে আলোচনা হয়। এছাড়াও জখমীর সনদ প্রদান ও ময়না তদন্তের প্রতিবেদন দাখিলের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দায়িত্বে অবহেলা, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) সাক্ষির হাজিরা দিয়ে আদালতে উপস্থিত না থাকা বা সঠিক সময়ে আদালতে সাক্ষির হাজিরা প্রদান না করা ইত্যাদি বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে। সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেদায়েত উল্যাহ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।