শনিবার, ২০ Jul ২০১৯, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
শরীয়তপুরে নিখোঁজের ৩ দিন পর মাছ শিকারীর গলিত লাশ উদ্ধার শরীয়তপুরে ৮দিন জেলখেটে ধর্ষক জামিনে মুক্ত, আতঙ্কে ভিকটিমের পরিবার, সুশীল সমাজে ক্ষোভ শরীয়তপুরে কলেজছাত্রী গণধর্ষণের অভিযোগে ৪ পরিবহন শ্রমিকের বিরুদ্ধে মামলা, আটক-১ কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার চেষ্টা, জাজিরা পৌর মেয়রপুত্র জেলহাজতে পাটুনীগাঁওয়ে কাঠমিস্ত্রীকে হাতুড়িপেটা শরীয়তপুরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা কালকিনিতে মাদক মামলার পলাতক আসামী র‌্যাবের হাতে আটক শরীয়তপুরের কোয়ারপুরে দু’গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ৮ ডামুড্যায় অগ্নিকান্ডে মুদি দোকানীর মৃত্যু শরীয়তপুরে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স
ভেদরগঞ্জের ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদে আবারও হামলা, ভাংচুর

ভেদরগঞ্জের ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদে আবারও হামলা, ভাংচুর

20180204_141507ভেদরগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদে সোমবার সকালে আবারও হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও অফিসের গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র তছনছ করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। এদিকে ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মীর মামুন সন্ত্রাসীদের হামলার ভয়ে এবং নিরাপত্তার অভাবে গত ১৫ দিন যাবত ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে যেতে পারছেন না। পরিষদের যাবতীয় কার্যাবলী নিজ বাসায় বসে সম্পন্ন করতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি। এতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে ছয়গাঁও ইউনিয়নবাসী। প্রতিদিনই সকাল ও সন্ধ্যায় উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মীর মামুনকে হত্যার জন্য এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা ইউনিয়ন পরিষদের আশে পাশে অস্ত্রের মহড়া দিচ্ছে বলে মীর মামুন অভিযোগ করেছেন। এতে শংকিত হয়ে পড়েছে ইউনিয়ন পরিষদের নাইটগার্ডসহ ৭ জন গ্রাম পুলিশও। এর আগে, ২৮ জানুয়ারি জামায়াত-বিএনপি সমর্থিত স্থানীয় কিছু চিহ্নিত ক্যাডার আগ্নেয়াস্ত্রসহ রাম দা, টেটা, সরকি, চাইনিজ কুড়াল নিয়ে প্রথমে ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বাংলাবাজারে মহড়া দেয়। এরপর ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে হামলা চালায় তারা। হামলাকারীরা ইউনিয়ন পরিষদের ভবন ভাংচুর করে চেয়ারম্যানের অফিস কক্ষে ঢুকে মূল্যবান কাগজপত্র তছনছ ও ট্যাক্স আদায় করা নগদ ১৬ হাজার ৮শ’ টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মীর মামুন বাদী হয়ে ভেদরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও পুলিশ বলছে তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এ ঘটনায় পুলিশের ভ’মিকা নিয়ে জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, এছাড়াও উক্ত ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্যরাও তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবীতে ২ ফেব্রুয়ারি শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন। ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মীর মামুন বলেন, সন্ত্রাসীদের পুনরায় হামলার ভয়ে তিনি নিরাপত্তাহীনতার কারণে নিজ অফিস ছেড়ে তার বাড়িতে অফিসের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। ভেদরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মেহেদী হাসান বলেন, এলাকায় দু’টি গ্রুপের দলাদলি রয়েছে। আমরা নিরাপত্তার জন্য সকাল বিকাল রাতে পুলিশী টহলের ব্যবস্থা করেছি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।