শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
পারভীন হক সিকদার এমপি’র পক্ষ থেকে দুঃস্থদের মধ্যে নগদ টাকা ও শীতবস্ত্র বিতরণ দুই লঞ্চের মুখোমুখি সংঘর্ষে ভেদরগঞ্জের রামভদ্রপুরের এক যুবক নিহত, আহত- ১২ ইতালীতে বহুতল ভবন থেকে পড়ে ভেদরগঞ্জের ৩ বছরের শিশু নিহত জাজিরায় মামলা তুলে না নেয়ায় ধর্ষিতার পিতাকে বোমা নিক্ষেপ, হাসপাতালে ভর্তি জাজিরায় ১৯ দিনেও ধর্ষক সাগর গ্রেপ্তার হয়নি ডুবন্ত যাত্রীদের উদ্ধারে পানিতে নেমে প্রশংসিত ডামুড্যা থানার ওসি ডামুড্যায় দুই মাদক ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড ডামুড্যার খেজুরতলায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খালে; নিহত ৩, আহত ২০ জাজিরায় অপহৃত শিশু ঢাকা থেকে উদ্ধার, চাচাসহ আটক ৩ নড়িয়ার ডিঙ্গামানিকে ঘূর্ণিঝড়ে গাছ চাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু
সখিপুরে হিজড়াদের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ সাধারণ জনগণ

সখিপুরে হিজড়াদের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ সাধারণ জনগণ

sssssssssssssssশাকিল আহম্মেদ, সখিপুর ।। জেলার  সখিপুর থানার বিভিন্ন এলাকায় হিজড়াদের বেপরোয়া চাঁদাবাজি ও অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে ঐসব এলাকার লোকজন। ব্যবসায়ী ও জনসাধারনণর কেউই রেহাই পাচ্ছেনা হিজড়াদের বেপরোয়া চাঁদাবাজি ও অত্যাচার থেকে। চাঁদার পরিমাণ নির্ধারিত না থাকায় লোকজনের কাছ থেকে মনগড়া চাঁদা দাবি করে হিজড়ারা। আর সেই দাবিকৃত চাঁদা কম দিলেই শুরু হয় অত্যাচার এমন কি কারো উপর হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করেনা তারা। সখিপুর থানার অধীনস্থ গৌরাঙ্গ বাজারের ব্যবসায়ীরা জানায়, প্রতি মাসে একবার চাঁদা দিতে হয় হিজড়াদের। তাদের দাবিকৃত টাকার সামান্য কম দিলে শুরু হয় অত্যাচার। তাই মানসম্মানের ভয়ে সকলেই তাদের চাহিদা পূরনণর চেষ্টা করে। কিন্তু কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনা যা ঐ এলাকার লোকজনের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। স্থানীয়রা জানায়, গত শনিবার বাজারের দরিদ্র দর্জি দোকানদার বাদশা মোল্যার কাছে ২০ টাকা চাঁদা দাবি করে সখিপুরের ইসমাইল হিজড়ার নেতৃত্বে পরিচালিত তিন সদস্যের একটি হিজড়া দল। ২০ টাকা না থাকায় হিজড়াদের ১০ টাকা দিয়ে বিদায় করতে চায় বাদশা। এমনকি পরের মাসে পুষিয়ে দেয়ার কথাও বলে সে। কিন্তু হিজড়ার দল তার কথায় কর্নপাত না করে অশ্লীল বাকবিতন্ডতা শুরু করে দেয় এবং এক পর্যায়ে বাদশাকে জুতা পেটা দেয়াসহ গালে চড় মারতে থাকে তারা। এ সময় এলাকার লোকজন প্রতিবাদ করলে সখিপুর থেকে হিজড়ার আরেকটি দল এসে সকলের সাথে বাজে আচরণ শুরু করে। এসময় কথিত হিজড়া প্রধান ইসমাইল নামের এক হিজড়া নিজেকে ক্ষমতাধর ব্যাক্তি বলে জাহির করতে চায়। তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তার পকেটে ইয়াবা ঢুকিয়ে পুলিশে সোপর্দা করার হুমকিও দেয় সে। ভুক্তভোগি বাদশা মোল্যা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, টাকার জন্য হিজড়ারা আমার মান সম্মান কেঁড়ে নিয়েছে। আমি ভয়ে কিছুই করতে পারি নাই। গৌরাঙ্গ বাজারের আরেক ব্যবসায়ী জহির সরকার জানান, মানসম্মানের ভয়ে ওদের দাবি পূরণ করে দেই। আমাদের কি আর করার আছে। একই অভিযোগ তোলে সখিপুরের চেয়ারম্যানবাজার, রশিদবেপারীর বাজার, মমিনালি মোল্যার বাজারসহ বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ীরা। সখিপুরের চরভাগা ইউনিয়নের খুনিকান্দি গ্রামের বাসিন্দা রসিদ মোল্যা বলেন, আমার মেয়ের বাচ্চা জন্ম গ্রহনণর চাঁদা হিসেবে ৫০০ টাকা নিয়েছে হিজড়ারা। না দিলে বাচ্চা তুলে নেয়ার হুমকি দেয় তারা। সখিপুরে বিয়ে বাড়িতেও চলে হিজড়াদের চাঁদাবাজি। যেকোন বিয়েতে উপস্থিত হয়ে নানা রকম অশ্লীল কর্মকান্ড ঘটিয়ে চাঁদাবাজি করে হিজড়ারা। সকলেরই দাবি হিজড়াদের অত্যাচার ও চাঁদাবাজি থেকে তাদের মুক্তি দেয়া অথবা সকলের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ চাঁদা নির্ধারিত করে দেয়া হোক। হিজড়াদের এসব বেপরোয়া কর্মকান্ডের ব্যাপারে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মন্জুরুল হক আকন্দ বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। হিজড়াদের বেপরোয়া কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।