বৃহস্পতিবার, ২০ Jun ২০১৯, ০৬:৫৭ পূর্বাহ্ন

স্টক এক্সচেঞ্জের সুপারিশ ছাড়া আইপিও নয়

স্টক এক্সচেঞ্জের সুপারিশ ছাড়া আইপিও নয়

স্টক এক্সচেঞ্জের সুপারিশ ছাড়া এখন থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিওর মাধ্যমে কোনো কোম্পানি শেয়ারবাজারে আসতে পারবে না। আগ্রহী কোম্পানিগুলোর সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র বা অফার ডকুমেন্ট পর্যালোচনা ও প্রয়োজনে পরিদর্শনের মাধ্যমে স্টক এক্সচেঞ্জ এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে সুপারিশ জমা দেবে। তার ভিত্তিতেই ওই কোম্পানির আইপিও অনুমোদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।
দুই স্টক এক্সচেঞ্জের আলাদা তালিকাভুক্তি বিধিমালায় এ বিধান সংযোজন করা হয়েছে। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট আইনে নতুন বেশ কিছু বিধান সংযুক্ত করা হয়েছে। আইন দুটি হলো ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (তালিকাভুক্তি) বিধিমালা-২০১৫ এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (তালিকাভুক্তি) বিধিমালা-২০১৫।
বিএসইসির গতকাল বুধবারের সভায় সংশোধিত এ আইন দুটি অনুমোদন করা হয়। সভা শেষে বিএসইসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সংশোধিত বিধিমালায় ওটিসি বাজারের বিভিন্ন সিকিউরিটিজকে মূল বাজারে ফিরিয়ে আনা বা পুনঃ তালিকাভুক্তি, তালিকাভুক্ত কোম্পানির স্বপ্রণোদিত তালিকাচ্যুত হওয়ার বিধানও সংযোজন করা হয়েছে।
একই বিধিমালার আওতায় বিভিন্ন বন্ড, ডিবেঞ্চার এবং মিউচুয়াল ফান্ডের তালিকাভুক্তির বিষয়টিও যুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া নতুন বিধিমালায় কোম্পানির বিষয়ে প্রয়োজন হলে স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষকে ওই কোম্পানি পরিদর্শনের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কোম্পানির যেকোনো বিষয়ে ওই কোম্পানির পরিচালক, কর্মকর্তা, নিরীক্ষকদের কাছ থেকে তথ্য বা ব্যাখ্যা তলবের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে স্টক এক্সচেঞ্জকে।
নিয়ন্ত্রক সংস্থাসমূহের সমন্বয় সভা: বাংলাদেশ ব্যাংক, বিএসইসি, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ, যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের নিবন্ধকের কার্যালয় বা আরজেএসসির মধ্যে গতকাল সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমার বিষয়টি আলোচনায় উঠে এলে তার জবাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমান বলেন, ব্যাংকের বিনিয়োগের শর্ত শিথিল করার ক্ষমতা বাংলাদেশ ব্যাংকের হাতে নেই। কারণ, এটি ব্যাংক কোম্পানি আইনে নির্ধারিত বিষয়। এখন তাতে কোনো পরিবর্তন আনতে হলে আইন সংশোধন করতে হবে। সেটি করতে পারে সরকার।
সভা শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এ কে সুর সাংবাদিকদের বলেন, শেয়ারবাজারের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক সব সময়ই সংবেদনশীল। মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগজনিত লোকসানের বিপরীতে প্রভিশন সংরক্ষণে ছাড় দেওয়ায় ব্যাংকগুলোর ৫০০-৬০০ কোটি টাকা কম প্রভিশন করতে হচ্ছে।
শেয়ারবাজার পরিস্থিতি: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৬১৬ পয়েন্টে। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক আগের দিনের প্রায় ১৪ হাজার ২৭৯ পয়েন্টের অবস্থানে ছিল। বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এটিকে বাজারের স্বাভাবিক প্রবণতা বলেই অভিহিত করেছেন। এদিকে ঢাকার বাজারে গতকাল লেনদেন বাড়লেও চট্টগ্রামের বাজারে কিছুটা কমেছে।
ঢাকার বাজারে গতকাল দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ৮৪২ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে ছয় কোটি টাকা বেশি। চট্টগ্রামের বাজারে দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ৭৪ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে তিন কোটি টাকা কম।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।