সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ-
গোসাইরহাটে বড় কাচনা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার নাটোরের বড়াইগ্রামে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যের মরদেহ উদ্ধার কুচাইপট্টিতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ব্যক্তি উদ্যোগে খাদ্য সহায়তা ইকবাল হোসেন অপু এমপি’র নেতৃত্বে ২১আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণ চন্দ্রপুরে জাতির পিতার শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা তুলাসার ইউনিয়নে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকার ও আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে -ইকবাল হোসেন অপু এমপি বন্যায় প্লাবিত নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, চিকিৎসা সেবা ব্যহত ভিডিও কনফারেন্সে পুলিশ সুপারের মতবিনিময় করোনা আর বন্যা একসাথে মোকাবেলা করতে সরকার দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে -উপমন্ত্রী শামীম
জিয়া মার্শাল ল জারি করেননি

জিয়া মার্শাল ল জারি করেননি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, ‘বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে অভিযুক্ত করে জাতীয় সংসদে মার্শাল ল নিয়ে নানা সমালোচনা করা হয়, অথচ তিনি মার্শাল ল জারি করেননি।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনিস্টিটিউটে জিয়াউর রহমানের ৩৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি আলোচনা সভাটির আয়োজন করে।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের তখনকার নেতা খন্দাকার মোশতাক ১৯৭৫ সাল মার্শাল ল জারি করেছিলেন।’

মওদুদ বলেন, ‘জিয়াউর রহমান বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনেছিলেন। বর্তমানে রাজনৈতিক শক্তিকে একত্রিত করে পুনরায় গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনাই বিএনপির
নেতাকর্মীদের প্রধান কাজ হবে।’

নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হতে হবে।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘জিয়াউর রহমান ছিলেন আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতীক। তিনি
সারাদেশের মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন। মুক্তিযুদ্ধকে সু-সংগঠিত করেছিলেন।’ জিয়াউর রহমান কোনো ক্যু করেননি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

আলোচনায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিকল্প ধারা বাংলাদেশের সভাপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। তবে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অনুষ্ঠান স্থলে উপস্থিত হলেও মঞ্চে না গিয়ে দর্শক সারির সামনে তার জন্য রাখা নির্ধারিত চেয়ারে বসে বক্তব্য শুনেন।

এছাড়া আরো উপস্থিত আছেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, যুগ্মমহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, চেয়ারপারসনের উপদ্ষ্টো আব্দুল মান্নান, শওকত মাহমুদ, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, ড. আসাদুজ্জামান রিপন, যুববিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা শিরিন সুলতানা, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মো. আকরামুল হাসান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ উপাচার্য খন্দাকার মোস্তাফিজুর রহমান, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বীরবিক্রম, গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক
error: কপি করা দন্ডনীয় অপরাধ,যে কোনো প্রয়োজনে কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।